অনলাইন সার্ভে থেকে আয় করার সুযোগ

আয়-রোজগার করতে এখন আর ঘরের বাইরে যেতে হয় না। ঘরে বসেই জীবিকার্জনের হাজারো উপায় খুঁজে পাওয়া সম্ভব যদি কেবল ইন্টারনেট সংযোগ থাকে। আর প্রচলিত চাকরির বাজারের তুলনায় অনলাইনে চাকরির বাজার রমরমাই বলা চলে। যেখানে প্রচলিত চাকরির বাজারে চাকরি প্রার্থীদের জন্য অপেক্ষা করছে বড় রকমের প্রতিযোগিতা, সেখানে অনলাইনে চাকরি অফুরান! অনলাইনের এমন অনেক চাকরি বা আয়ের উৎসের মাঝে একটি হলো অনলাইন সার্ভে। চলুন আজ সার্ভে সম্পর্কে জেনে নিই।

Image Source: friendsofswcharter.com

অনলাইন সার্ভে কী?

সার্ভে হচ্ছে একটি অনলাইন জরিপ। যখন কোনো পণ্য বা দ্রব্য বাজারে আসে তখন সেই পণ্য বা দ্রব্যটি মানুষের কাছে কতটা গ্রহণযোগ্যতা লাভ করেছে বা করতে পারবে, সেটি জানার জন্য অনলাইনে যে জরিপ চালানো হয় তাকেই সার্ভে বলে। আর এজন্যই দেখা যায় বিভিন্ন বড় বড় কোম্পানি তাদের পণ্যের প্রসারের জন্য বিভিন্ন ধরনের সার্ভে করে থাকে।

এই সার্ভেগুলো করার মূল উদ্দেশ্য থাকে তাদের পণ্যের অবস্থান যাচাই করা, ওই পণ্যের কোনো বিকল্প পণ্য আছে কি না সেটি দেখা। জরিপ করেই কোম্পানিগুলো তাদের ব্যবসায়িক পলিসি নির্ধারণ করে থাকে। সার্ভের কাজে সহযোগীতার জন্য অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে যারা ঐ কোম্পানির হয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন তৈরি করে থাকে এবং তার মাধ্যমে জরিপ পরিচালনা করে। আর এসব কাজে যারা তাদের মতামত দেন বা সার্ভে কাজে সাহায্য করেন, তাদের সার্ভে পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান অর্থ প্রদান করে।

কাজ পাবেন কীভাবে?

অনলাইন সার্ভে লিখে গুগলে সার্চ করলেই অনেকগুলো সাইট পাওয়া যাবে। অধিকাংশ সার্ভে সাইটে বিনামূল্যে সদস্য হওয়া যায়। তবে সেখানে বিনিয়োগ করারও সুযোগ রয়েছে। এখানে বিনিয়োগের সুবিধা হলো বিনামূল্যে আপনি যা আয় করছেন তার চেয়ে বেশি আয়ের সুযোগ আপনি এখানে পাবেন। তবে বিনামূল্যে একাউন্ট করাই বুদ্ধিমানের কাজ। কাজ পাওয়ার জন্য আপনার প্রথম পদক্ষেপ হবে তাদের সদস্য হওয়া। এরপর সেই সাইট থেকে আপনার মেইলে আপনাকে জরিপের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে অবহিত করা হবে।

Image Source: qa.questionpro.com

চাইলে আপনি তাদের সাইট থেকেই বিভিন্ন জরিপের তালিকা খুঁজে নিতে পারেন। আপনার কাজ হবে শুধু সেই জরিপে যে প্রশ্ন সমূহ থাকবে তাদের উত্তর করা। জরিপের প্রশ্ন সহজ বা জটিল উভয় ধরনের হতে পারে। আর এই সহজ কঠিনের সাথে মিল রেখে টাকার অংকটাও ওঠানামা করে। ছোট জরিপের জন্য কয়েক সেন্ট আর বড় জরিপের জন্য কয়েক ডলার পারিশ্রমিক দেয়া হয় সাধারণত। তবে, বাংলাদেশে বসে আপনি চাইলেও একদিনে চারটির বেশি জরিপ করতে পারবেন না। ভিপিএন ব্যবহারের মাধ্যমে চাইলে আরো বেশি করতে পারবেন। আর, এ কাজের মাধ্যমে আপনি চাইলে দিনে ১২-১৫ ডলার পর্যন্ত উপার্জন করতে পারবেন।

সবচেয়ে জনপ্রিয় ৫টি সার্ভে সাইট

অনলাইনে বর্তমানে আয় করার যে ক’টি মাধ্যম রয়েছে, তার মধ্যে সার্ভে সবচেয়ে সহজ ও জনপ্রিয়। আর এ কারণেই দিনকে দিন অনলাইন সার্ভে সাইটের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। অবশ্য সব সার্ভে সাইট থেকে উপার্জন করতে পারবেন বলে যদি ধারণা করে থাকেন তবে আপনি ভুল ভাবছেন। আর সব সার্ভে সাইটই যে বিশ্বস্ত তা-ও নয়। তাই টাকা উপার্জনের প্রশ্ন যখন আসে তখন আপনাকে অবশ্যই যে সমস্ত সাইট বিশ্বস্ত ও ঝুঁকিমুক্ত সেগুলোতে কাজ করতে হবে। এরকম ৫টি জনপ্রিয় ও বিশ্বস্ত সার্ভে সাইটের নাম এখানে দেওয়া হলো।

. Superpay.me: সার্ভে সাইটের একেবারে প্রথম সারিতে এই সাইটটির অবস্থান। প্রতিদিন অসংখ্য সার্ভে পাওয়া যায় এই সাইটে। ভালোভাবে কাজ করে এই সাইট থেকে প্রতিদিন আপনি কমপক্ষে ৫ ডলার আয় করতে পারবেন।

২. Rewarding Ways: অনলাইনে সার্ভে সাইট থেকে আয় করার জন্য আরো রয়েছে Rewarding Ways। এ সাইটটিও খুবই বিশ্বস্ত। বিগত ১৬ বছর যাবৎ এ সাইটটি বিশ্বস্তার সাথে কর্মসংস্থান করে চলেছে হাজারো মানুষের।

৩. Offer nation: অনলাইনে সার্ভে সাইটের মধ্যে এটিও বেশ জনপ্রিয় একটি সাইট।

. Vindale Research: যারা সার্ভেতে কাজ করে সফল হতে পারছেন না  তাদের জন্য হতে পারে একটি আদর্শ সার্ভে সাইট।

৫. Survey Junkie: বর্তমানে সার্ভে সাইটগুলোর মধ্যে এটিও বেশ জনপ্রিয় একটি সাইট। সবচেয়ে বেশি সংখ্যক সার্ভে পাওয়া যায় এবং পেমেন্টও হয় দ্রুত।

সার্ভে কাজে প্রশ্নের ধরন

সার্ভে কাজে সাধারণত দু’ধরনের প্রশ্ন দেখা যায়। কিছু সার্ভে আছে যেখানে শুধু হ্যাঁ বা না দিয়ে উত্তর করতে হয়। এ ধরনের সার্ভে করতে ৫-৬ মিনিটের মতো সময় লাগে। আবার আরেক ধরনের সার্ভে আছে যেখানে কোনো একটি পণ্যের সম্বন্ধে আপনার মতামত লিখতে বলা হয়। এ সার্ভে সমূহ করতে ১৫-২০মিনিট সময় ব্যয় হতে পারে। মনে রাখবেন, সার্ভের প্রশ্নগুলো যথেষ্ট সহজ এবং আপনি স্বাচ্ছ্যন্দের সাথেই সেসব পূরণ করতে পারবেন। 

যেসব নিয়ম মেনে চলবেন

অনেক বেশি আয় করার লোভে কাউকে টাকা দিয়ে সদস্য হবেন না। যেহেতু অধিকাংশ সাইটেই বিনা খরচে সদস্য হওয়া এবং অর্থ উপার্জন করা যায়, তাই বিনিয়োগ না করাই সবচয়ে ভাল কাজ হবে। জরিপের প্রশ্নসমূহ করা হয় কোম্পানির নিজেদের উপকারের জন্য এবং তারা আপনাকে অর্থ প্রদান করবে আপনাকে বিশ্বস্ত জেনেই। তাই নিজের দায় থেকেই সব প্রশ্নের যথাসম্ভব সঠিক উত্তর দিন।

Image Source: aecb.net

যেহেতু সার্ভের প্রশ্ন ইংরেজিতে করা হয়, তাই আপনার কাজের সুবিধার জন্য গুগল ট্রান্সলেটর ব্যবহার করতে পারেন। তবে সার্ভের কাজের জন্য সেই প্রশ্নসমূহ অনুধাবন করে উত্তর করার মতো ইংরেজি জ্ঞান থাকা চাই। বেশিরভাগ সার্ভে সাইটই পেপাল, পাইজা, এমাজন গিফট কার্ডে পারিশ্রমিক প্রদান করে। তাই টাকা ওঠানোর জন্য নিজের পছন্দসই পেমেন্ট প্রক্রিয়া  বেছে নিন।

Written by Sizan Ahmed

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

দক্ষ কন্টেন্ট রাইটারের যে পাঁচটি গুণ থাকা আবশ্যক

ডোমেইন নেম কেনা বেচার ব্যবসার আদ্যোপান্ত